অধ্যক্ষের বানী


অন্ধকার সরিয়ে আলোর রশ্মি ছড়িয়ে দেয়াই শিক্ষা। শিক্ষার আলোয় আলোকিত হয় মানবজীবন । শরীর, মন, আত্মার সুষম উন্নতি সাধন বা উৎকর্য সাধনই শিক্ষা । প্রতিটি মানুষের মনোজগতে এক ধরনের পাশবিক আচরণ লুকায়িত থাকে, শিক্ষার আলোক বর্তিকা পাশবিকতার মনোবৃত্তি থেকে মানুষকে মানবিক গুণাবলিতে গুণান্বিত ও সুশিক্ষিত করে তোলে ।

শিক্ষার প্রকৃত উদ্দেশ্য হলো নিজেকে চেনার মাধ্যমে জীবন ও জগতের নিগূঢ়-তত্ত্ব জানা । আর এটাই হলো প্রকৃত অর্থে সুশিক্ষা । দার্শনিক সক্রেটিস বলেছেন, KNOW THYSELF অর্থাৎ নিজেকে জানো এটাই সুশিক্ষার মুলমন্ত্র । সুশিক্ষা ছাড়া কোন জাতি বা মানবগোষ্ঠী বিশ্বসভায় মর্যাদার আসনে আসীন হতে পারে না । এ ধ্যান-ধারণার গুরুত্ব উপলব্ধি করে আমরা শিক্ষার্থীদের অন্তর্নিহিত প্রতিভা গুলোকে জাগরণের মাধ্যমে সুশিক্ষা নিশ্চিত করতে বদ্ধপরিকর ।

আফাজউদ্দিন মেমোরিয়াল স্কুল এন্ড কলেজ মহৎ উদ্দেশ্যের একটি উৎস-ধারা; যার সুধারস সিঞ্চিত হবে স্বদেশে ও স্বদেশের পরিসীমার বাইরে । দেশ, জাতি এবং বিশ্বমানবতার অগ্রযাত্রায় একদল আলোক-অভিসারী জ্ঞানপিপাসু মানুষকে শামিল করার দৃঢ় প্রত্যয় নিয়ে আলোকবর্তিকা হাতে দণ্ডায়মান স্বপ্নিল এই শিক্ষাঙ্গনটি । শুধু তীক্ষ্ণ মেধা কিংবা শুধু নৈতিকতা এককভাবে সুনাগরিক তৈরি করতে পারে না । এক্ষেত্রে একাধারে দুটো বিষয়ের সমন্বয় অপরিহার্য ।

আমরা সেদিকে লক্ষ্য রেখে এভাবেই আমাদের ভবিষ্যৎ নাগরিক গড়ে তুলতে প্রতিজ্ঞাবদ্ধ । পাঠ্য পুস্তকের জ্ঞানার্জনের পাশাপাশি এখানে প্রতিভা বিকাশের জন্যে কোমলমতি শিক্ষার্থীদের সুকুমার বৃতিগুলোর নিবিড় পরিচর্যা করা হয় । এর মাধ্যমে তাদের জ্ঞান অন্বেষণ পাশাপাশি মানবিক মূল্যবোধ জাগ্রত করা এবং সমাজ ও দেশের উন্নয়নে আত্মনিয়োগর প্রস্ততিতে উদ্বুদ্ধ করা আমাদের প্রতিষ্ঠানের অন্যতম লক্ষ্য ।

সুশিক্ষার জন্য যথোপযুক্ত পরিবেশের বিকল্প নেই । একদিকে সাধারন গ্রামীণ ও শান্ত-কোমল প্রকৃতি, অন্যদিকে কর্মব্যস্ত শহরের গতিশীলতার সার্থক ছোঁয়া পেয়েছে প্রতিষ্ঠানটি । গ্রাম যেমন কোমলমতি শিশুদের শান্ত ও কোমল হতে শেখায়, তেমনি শহর শেখায় গতিশীল হতে । তুরাগের তীরে দাঁড়ালে বিরহী মনেও বাঁশির সুর বেজে ওঠে । মাতৃরুপী সেই তুরাগের শীতল হাওয়া শিক্ষার্থীদের প্রানের তৃষ্ণা মেটায় । কেননা আমার জানি সুস্থ-মন-দেহ-সুশিক্ষার পূর্বশর্ত ।

মনোরম প্রাকৃতিক পরিবেশ, নান্দনিক আবকাঠামো, দক্ষ ও অভিজ্ঞ শিক্ষক-শিক্ষিকা মণ্ডলীর সান্নিধ্য, সুচিন্তিত ও সুপরিকল্পিত শিক্ষাপদ্ধতির সফল সমন্বয়ের ফলাফল আমরা ইতিমধ্যেই পেতে শুরু করেছি । প্রতিষ্ঠানটি এই ধারাবাহিকতা বজায় রেখে বাংলাদেশ তথা বিশ্বশিক্ষাঙ্গনে কৃতিত্বের স্বাক্ষর রাখবে বলে আমার বিশ্বাস ।

মহাঃ দিলওয়ার হোসেন
অধ্যক্ষ,
আফাজউদ্দিন মেমোরিয়াল স্কুল এন্ড কলেজ।
কালিয়াকৈর, গাজীপুর।